হরিপুর সীমান্তে পাথর কালীপূজায় হলো না মিলন মেলা

27
print news

জহুরুল ইসলাম (জীবন) হরিপুর(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে পাথর কালীপূজায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে হলো না এবারও মিলন মেলা।ঠাকুরগাঁও জেলার কোঁচল ও চাঁপাসার, গোবিন্দপুর এবং ভারতের নাড়গাঁও ও মাকারহাট সীমান্তের তারকাঁটার এপার-ওপার দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে প্রতি বছর এই দিনে দুই বাংলার হাজার-হাজার মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয়। কিন্ত এবার পূজা অনুষ্ঠিত হলেও উপজেলা প্রশাসনের আইন শৃঙ্খলার কঠোর নিরাপত্তার কারণে হলো না দুই বাংলার মানুষের মিলন মেলা।বর্ষ পঞ্জিকা অনুযায়ী হিন্দু সম্প্রদায় প্রতি বছর শ্রী-শ্রী জামর কালির জিউ (পাথরকালি) পূজা উপলক্ষে হরিপুর উপজেলার ভাতুরিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দপুরে কুলিক নদের পাড়ে মেলা উদযাপন করে থাকেন। আর এ পূজা উপলক্ষে প্রতি বছরে এই দিনে দূর-দূরান্ত থেকে দু-দেশের স্বজনরা ভিড় জমায় ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার চাপাসার ও রাণীশংকৈল উপজেলার কচল সীমান্তের ৩৪৫ ও ৩৪৬ নং পিলার এলাকার তারকাঁটার বেড়ার এপার-ওপার।


প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আজ শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) পূজা ও মেলা উপলক্ষে সকাল দু-দেশের স্বজনরা সীমান্তে সমবেত হতে থাকে স্বজনদের সাথে দেখা ও কথা বলার জন্য। কিন্তু প্রশাসনের কড়াকড়ির কারণে মিলন মেলায় ঘুরতে আসা মানুষ তাদের আত্মীয়-স্বজনদের সাথে দেখা করতে না পেরে হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরে যান।

হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান ও থানার অফিসার ইনচার্জ এবিএম ফিরোজ ওয়াহিম বলেন, পূজা উদযাপন করতে তাদের সার্বিক সহযোগিতা করা হয়েছে কিন্ত সীমান্তে আইন শৃংখলা রক্ষার জন্য শূন্য রেখায় মানুষের কোনো সমাগম করতে দেওয়া হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন